জাতীয় সংবাদ : দায়িত্ব পালনে অবহেলা, অসদাচরণ ও ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগে দুদকের দুই সহকারী পরিচালক এস. এম. শামীম ইকবালকে চূড়ান্তভাবে  এবং বীর কান্ত রায়কে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

সোমবার দুদকের দুদকের উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বরখাস্তের বিষয়ে দুদকের মহাপরিচালক (প্রশাসন) মোহাম্মদ মুনীর চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, দুদক কর্মকর্তা-কর্মচারীরা যাতে দুর্নীতি ও ক্ষমতার অপব্যবহারে জড়িয়ে না যায়, তা নিশ্চিত করতে এ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। দুদক প্রাতিষ্ঠানিক অনুশাসন প্রতিষ্ঠার প্রয়োজনে আরও কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

দুদক সূত্রে জানা গেছে, এস. এম. শামীম ইকবালের বিরুদ্ধে খুলনা সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে কর্মরত অবস্থায় একটি দুর্নীতির মামলায় এক বছরের বেশি সময় আদালতে চার্জশিট দাখিল না করে নিজের কাছে রেখে দেয় বলে অভিযোগ পায় দুদক। দুদকের বিভাগীয় তদন্তে তার বিরুদ্ধে দায়িত্বে অবহেলা ও অসদাচরণের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় গতকাল রবিবার (২০ মে) তাকে চাকরি থেকে চূড়ান্তভাবে বরখাস্ত করা হয়। এর ফলে তিনি চাকরি থেকে অবসরের কোনও সুবিধা পাবেন না।

অপরদিকে দিনাজপুরে সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে কর্মরত সহকারী পরিচালক বীর কান্ত রায় একটি ব্যাংকের ঋণ জালিয়াতির মামলায় তদন্ত কার্যক্রমে এক বছরের বেশি (৩৮৪ দিন) সময় পার করে দেন। বীর কান্ত রায় কোনও না কোনোভাবে আসামির মাধ্যমে প্রভাবিত হয়ে তদন্ত কার্যক্রমে বিলম্ব করেছেন বলে দুদকের বিভাগীয় তদন্তে প্রমাণ পায়। এ অপরাধে তাকে সোমবার চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY