নান্দাইল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি ঃ ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার সিংরইল ইউনিয়নের সুনামখালী গ্রাম থেকে রবিবার (৩ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় উদং মধুপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রীর বাল্য বিবাহ নিবন্ধনের পর কনের মা ও বাল্য বিবাহ নিবন্ধন করানো (কাজী) নূরুল ইসলামকে আটক করে নান্দাইল মডেল থানা পুলিশ। নান্দ্ইাল থানা সূত্র জানায়, সিংরইল ইউনিয়নের সবুর আলীর মেয়ে পিংকি(১৩)কে বাল্যবিয়ে দেওয়া হয়। খবর পেয়ে নান্দাইল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃহাফিজুর রহমান বাল্যবিয়ে বন্ধ করার জন্য নান্দাইল মডেল থানা পুলিশকে অবহিত করলে এসআই নুরুল হুদা গিয়ে দেখতে পান বিয়ে পড়ানোর কাজ সম্পন্ন হয়ে গেছে। পরে বাল্যবিয়ে নিবন্ধনের অপরাধে নিবন্ধক কাজী নুরুল ইসলাম ও বাল্যবিয়েতে সহযোগিতার অপরাধে পিংকির মা সাহারা খাতুনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। নান্দাইল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ সরদার মোহাম্মদ ইউনুছ আলী আটকের কথা নিশ্চিত করে বাল্যবিয়েতে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের ইউপি সদস্য সোহরাব উদ্দিন নিজেই স্বাক্ষী এবং এ ঘটনায় মামলা হয়েছে বলে জানান ।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY