রাজনীতি সংবাদ : নিপা রানী কর্মকার নামে এক যুবতীর পিতার দায়িত্ব নিয়ে তার বিয়ের যাবতীয় ব্যয় বহন করেছেন জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। শুধু তাই নয়, বিয়েতে নিজে উপস্থিত থেকে নিপাকে সোনার গহনা পরিয়ে আর্শীবাদও করেছেন তিনি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রাজধানীর তাঁতীবাজারের নিম্ন-মধ্য বিত্ত পরিবারের মেয়ে নিপা কর্মকার। নিপার জন্মদাতা পিতার নাম নারায়ণ কর্মকার। নারায়ণ কর্মকারে সঙ্গে এরশাদের সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। সেই সুবাদে নিপাকে ছোটবেলা থেকেই পিতৃস্নেহে বড় করেছেন এরশাদ। তাকে পড়াশুনাও করিয়েছেন তিনি। একজন পিতা হিসেবে মেয়ের প্রতি যে দায়িত্ব পালন করা দরকার তার সবটুকুই করেছেন এরশাদ। রবিবার সোনার গহনা থেকে শুরু করে বিয়ের যাবতীয় খরচ বহন করে এরশাদ তার পালিত কন্যাকে স্বামীর ঘরে পাঠিয়ে দেন।

শনিবার দিবাগত রাতে রাজধানীর ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরে নিপার বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় এরশাদের সঙ্গে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি, সুনীল শুভ রায়, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জাতীয় পার্টির সাংগঠনিক সম্পাদক সুজন দে, নিপার জন্মদাতা পিতা নারায়ণ কর্মকারসহ নিপার কয়েক শতাধিক আত্মীয়-স্বজন উপস্থিত ছিলেন।

 

এদিকে নিপা রানী কর্মকারের পিতা হিসেবে এরশাদ নিজে মন্দিরে উপস্থিত হয়ে বিয়ে দেওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে মন্দিরে ছুটে আসেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি জয়ন্ত সেন দিপু, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট তাপস পাল, ঢাকা মহানগরের সভাপতি দিপেন চ্যাটার্জী, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শ্যামল কুমার রায়, সাবেক রাষ্ট্রদূত নিম চন্দ্র ভেীমিক, সুব্রত চৌধুরী, জে এল ভৌমিক, নারায়ণ সাহা মনিসহ বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ, ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দ। এই সময় তারা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে তার মহানুভতার জন্য ধন্যবাদ জানান।

 

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY