জাতীয় সংবাদ : আওয়ামী লীগ সরকারের শাসনামলে গত নয় বছরে দেশ যতটা এগিয়েছে সেটি বিশ্বে এর আগে কখনও হয়েছে কি না সে প্রশ্ন রেখেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলেছেন, কেউ এমনটা পারেনি।

বুধবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পিপিপি (সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব) কর্তৃপক্ষের বোর্ড অব গভর্নরস এর দ্বিতীয় সভায় এমন মন্তব্য করেন শেখ হাসিনা।

২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বরের নির্বাচনে ভূমিধস বিজয়ের পর জানুয়ারিতে সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি-জামায়াত জোটের বর্জনের ‍মুখে টাকা দুই মেয়াদে সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ।

এই দুই মেয়াদে দেশের দারিদ্র্যের হার উল্লেখযোগ্য পরিমাণে কমেছে। মাথাপিছু আয় বৃদ্ধি, টেকসই প্রবৃদ্ধি, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও অবকাঠামো উন্নয়ন, তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহারে বিভিন্ন সরকারি সেবা জনগণের দোড়গোরড়ায় নিয়ে যাওয়া, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের উন্নয়নের প্রশংসা ও স্বীকৃতি এসেছে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডল থেকেও।

চলতি বছরই প্রথমবারের মতো উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের জন্য প্রাথমিক স্বীকৃতিপত্র পেয়েছে জাতিসংঘ থেকে। এর আগে বিশ্বব্যাংকের হিসাবে নিম্ন আয়ের দেশের তালিকা থেকেও বাংলাদেশ বের হয়ে আসে আওয়ামী লীগ আমলেই।

আর গত নয় বছরের উন্নয়নের দাবি ‍তুলেই আগামী জাতীয় নির্বাচনে আবারও ভোট দিতে জনগণকে আহ্বান জানাচ্ছে ক্ষমতাসীন দল।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘নয় বছরের মধ্যে দেশকে আমরা যে জায়গায় নিয়ে গেছি। এত অল্প সময়ের মধ্যে পৃথিবীর আর কোনো দেশ পেরেছে এটা? পারেনি। আমি চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলতে পারি। আমরা বাংলাদেশে এটা করেছি।’

‘আমরা স্যাটেলাইটে আকাশেও গেছি। আমরা সাগরের নিচেও গেছি। আমরা উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হয়েছি। এত অল্প সময়ের মধ্যে।’

‘আমরা উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হয়ে গেছি এই সময়ের মধ্যে। তার মধ্যে আমাদের

কত বাঁধা, অগ্নি সন্ত্রাস মোকাবেলা করতে হয়েছে।’

‘মানুষ খুন করা, নানা রকম সমালোচনা, নানা রকম লেখা। অনেক কিছু সহ্য করে অনেক বাধা, বিঘ্ন প্রতিবন্ধকতা অতিক্রম করতে হয়েছে আমাদের।’

আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলেই দেশে উন্নয়ন হয় দাবি করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জাতির পিতা রেখে গিয়েছিলেন স্বল্পোন্নত দেশ। মাত্রা সাড়ে তিন বছরে তিনি একটি যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশকে এই পর্যায়ে উন্নীত করে গিয়েছিলেন। এরপর আর কেউ কিছু করতে পারেনি। আমরাই বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশে পরিণত করেছি।’

‘দেশের মানুষ ভালো আছে, এটাই সবচেয়ে বড় কথা। হাহাকার নয়, অভুক্ত মানুষ নাই, হাড্ডিস্বার-কঙ্কালসার মানুষ তো নাই। যেটুকু বাকি আছে, সেটাও আমরা করে ফেলব।’

আগামীতে আবার ক্ষমতায় আসতে পারলে আরও উন্নয়নের অঙ্গীকার করেন শেখ হাসিনা। বলেন, ‘আরেকটা মেয়াদ যদি পাই, দেখবেন বাংলাদেশের চেহারা আরও পাল্টে যাবে, বাংলাদেশ আরও এগিয়ে গেছে।’

সরকারের সমালোচনার জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, ‘এত উন্নয়ন হচ্ছে তারপরও বিদেশে গিয়ে বলবে কিছুই হয়নি।’

পিপিপি কর্তৃপক্ষকে কোনো ধরনের গুজবে কান না দিয়ে দেশের উন্নয়নে কাজ করে যাওয়ারও আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY