স্টাফ রিপোর্টার
নান্দাইলের জনসভাকে এলজিআরডিমন্ত্রী তার জীবনের শ্রেষ্ঠ জনসভা উল্লেখ করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল। শেখ হাসিনা সুনির্দিষ্ট লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন। ২০২১ সালের আগেই বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে। এদেশের মানুষ ইউরোপ ও আমেরিকার মতো উন্নত জীবন-যাপন করবেন। আগে বাংলাদেশের মানুষের জনপ্রতি আয় ছিলো ৫৩৬ ডলার। বর্তমানে জনপ্রতি আয় ১৬৪৪ ডলার। যা তিনগুণেরও বেশি। তিনি বলেন, বাংলাদেশে আওয়ামী লীগের কোনো বিকল্প নেই। আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করতে হবে। তবেই বাংলাদেশ আরও উন্নত হবে। তিনি রোববার বিকালে ময়মনসিংহের নান্দাইলে চন্ডিপাশা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত স্মরণকালের সর্বশ্রেষ্ঠ জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
দূর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার পরও জনসভা জনসমুদ্রে পরিণত হওয়ায় এলজিআরডিমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন অভিভূত হয়ে নান্দাইলবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। এমপি আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিনের জনপ্রিয়তায় তিনি মুগ্ধতা প্রকাশ করেন। তাকেই আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নান্দাইলে একক প্রার্থী উল্লেখ করে আবারও তুহিনকে জয়যুক্ত করার আহ্বান জানান। জনসভার শেষ দিকে তিনি নান্দাইল পৌরসভাকে তৃতীয় শ্রেণী থেকে দ্বিতীয় শ্রেণীতে উন্নিত করার ঘোষণা দেন। একই সাথে তিনি আগামী ২ বছর নান্দাইলে ৪শ’ কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নের ঘোষণা দিয়েছেন। নান্দাইলের কোথাও এক ইঞ্চি কাঁচা সড়ক এবং অসম্পন্ন ব্রিজ ও কালভার্ট থাকবে না। অন্যদিকে তিনি ময়মনসিংহের প্রতিটি উপজেলায় খাল ও বিল খননসহ অন্যান্য কাজের জন্য উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন আধুনিক বেকো সরবরাহের জন্য এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলীকে নির্দেশ দেন।
নান্দাইল আসনের এমপি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিনের সভাপতিত্বে জনসভায় ফুলপুর আসনের এমপি শরীফ আহমেদ, সিরাজগঞ্জ-২ আসনের এমপি অধ্যাপক ডা. হাবিব এ মিল্লাত, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের (এলজিইডি) প্রধান প্রকৌশলী শ্যামা প্রসাদ অধিকারী, ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মমতাজ উদ্দিন মন্তা, নান্দাইল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক চৌধুরী স্বপন, নান্দাইল পৌরসভার মেয়র রফিক উদ্দিন ভূঁইয়া, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক হাসান মাহমুদ জুয়েল, ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ সদস্য ও উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আবু বক্কর সিদ্দিক বাহার, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানদের পক্ষে চন্ডিপাশা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এমদাদুল হক ভূঁইয়া প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
দূর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার পরও স্মরণকালের সর্বশ্রেষ্ঠ এ জনসভায় যোগ দেওয়ার জন্য দুপুরের পর থেকেই উপজেলা সদরের আশপাশসহ বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা জনসভাস্থলে আসতে থাকেন। জনসভা শুরুর আগেই চন্ডিপাশা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের বিশাল মাঠ কানায় কানায় ভরে যায়। তিল ধারনের ঠাঁই ছিলো না। আশপাশের এলাকায় জনজটের সৃষ্টি হয়। এলজিআরডিমন্ত্রীর আগমনে নান্দাইলের সর্বত্র বইছিলো আনন্দের জোয়ার। জনসভা সফল করতে শনিবার মধ্য রাত পর্যন্ত অক্লান্ত পরিশ্রম করেন এমপি আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিন।
দূর্যোগপূর্ণ আহাওয়া উপেক্ষা করে বৃষ্টিতে ভিজে বিপুল সংখ্যক মানুষ জনসভায় উপস্থিত হওয়ায় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এমপি আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিন। তিনি বলেন, মহাপ্রলয় হলেও আমার নান্দাইলবাসী আমার কথা রাখতেন। এ ঋণ কখনও শোধ করা যাবে না। জীবনের শেষ সময় পর্যন্ত নান্দাইলবাসীর সেবা করতে চাই। অন্যদিকে উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন এবং জনসভা সফল হওয়ায় নান্দাইলবাসী ছাড়াও জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মমতাজ উদ্দিন মন্তা এবং এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মোশাররফ হোসেনের প্রতি তিনি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY