পবিত্র ঈদুল ফিতরের মতো ঈদুল আজহাতেও বিএনপির অধিকাংশ শীর্ষ নেতা রাজধানী ঢাকাতেই ঈদ উদযাপন করবেন। তবে একাদশ জাতীয় নির্বাচনে তরুণ প্রার্থী হিসেবে যারা মনোনয়ন প্রত্যাশী তাদের অধিকাংশই এলাকার ভোটারদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করবেন। দলীয় সূত্র ও দলের একাধিক নেতার সঙ্গে কথা বলে এই তথ্য জানা গেছে।

এদিকে দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া লন্ডনে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে ঈদ করবেন। তৃতীয়বারের মতো দেশের বাইরে ঈদ উদযাপন করছেন তিনি। পাশাপাশি দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান নেতাকর্মীদের নিয়ে লন্ডনেই ঈদ করছেন।

দলীয় সূত্র জানায়, মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর নিজ এলাকা ঠাকুরগাঁওয়ে ঈদ উদযাপন করতে যাবেন। তবে বিএনপির সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরামের বেশিরভাগ নেতা ঈদ করবেন ঢাকায়।

স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন ঈদ করবেন ঢাকাতে। এছাড়া রাজধানীতে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ঈদ করবেন স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, এম কে আনোয়ার, লে. জে. (অব) মাহবুবুর রহমান, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান।

বরাবরের মতো এবারও স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে নিজ এলাকা যশোরেই ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করবেন। আরেক স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন আহমেদ ভারতে ঈদ উদযাপন করবেন। তবে স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী কোথায় ঈদ করবেন তা নিয়ে সন্দিহান রয়েছেন।

ভাইস চেয়ারম্যানদের মধ্যে ঢাকায় ঈদ করবেন শামসুজ্জামান দুদু, আহমদ আজম খান, চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর। উপদেষ্টাদের মধ্যে ঢাকায় ঈদ করবেন গাজী মাজহারুল আনোয়ার, অধ্যাপক ড. তাজমেরী এস এ ইসলাম, নাজমুল হক নান্নু, আবদুস সালাম, জয়নাল আবদিন ফারুক।

যুগ্ম মহাসচিবদের মধ্যে হাবিব উন নবী খান সোহেল ঢাকাতে এবং সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল ঈদ করবেন নিজ এলাকা বরিশালে।

আরেক যুগ্ম মহাসচিব আসলাম চৌধুরী কারাগারে রয়েছেন। কারাবন্দিদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করবেন তিনি।

সাংগঠনিক সম্পাদকদের মধ্যে ঢাকায় ঈদ করবেন শাখাওয়াত হাসান জীবন, বিলকিস জাহান শিরিন বরিশালে, এমরান সালেহ প্রিন্স ময়মনসিংহে ঈদ উদযাপন করবেন। কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক এবং কিশোরগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি মো. শরীফুল আলম নিজ এলাকায় ঈদ করবেন।

এছাড়া দলের আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক মাসুদ আহমেদ তালুকদার, শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক ড. ওবায়দুল ইসলাম এবং সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার রুমীন ফারহানা রাজধানীতেই স্বজনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করবেন।

অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের মধ্যে যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নীরব ও সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু ঢাকাতেই ঈদ করবেন। স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু নিজ এলাকা লক্ষ্মীপুরে এবং সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েলও ঈদ করবেন নিজ এলাকা নরসিংদিতে। জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সভাপতি রাজীব আহসান রাজধানীতে ও আকরামুল হাসান মিন্টু নিজ এলাকা নরসিংদিতে ঈদ উদযাপন করবেন।

বিএনপি চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান সোহেল ও মিডিয়া উইং কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান ঢাকাতেই ঈদ করবেন। তবে চেয়ারপারসনের আরেক মিডিয়া উইং কর্মকর্তা শামসুদ্দিন দিদার ঈদ উদযাপন করবেন নিজ এলাকা কুমিল্লাতে।

এদিকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তরুণ প্রার্থীদের মধ্যে যারা মনোনয়ন পেতে দৌড়ঝাঁপ করছেন তাদের অধিকাংশই নির্বাচনী এলাকার ভোটারদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করবেন বলে জানা গেছে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY