বিনোদন সংবাদ : ‘কয়েকজন ভারতীয় সন্ত্রাসী আমেরিকার ম্যানহাটন অঙ্গরাজ্যটি বোমা মেরে উড়িয়ে দেয়ার ষড়যন্ত্র করছে। ভারতীয় সন্ত্রাসবাদীরা আবার এই বোমা হামলার দায় চাপানোর চেষ্টা করছে তাদের ‘চিরশত্রু’ দেশ পাকিস্তানিদের উপরে। বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াংকা চোপড়া অভিনীত আমেরিকান টিভি সিরিজ কোয়ান্টিকোর তৃতীয় সিজনের চিত্রনাট্য ঠিক এমন কাহিনি নিয়েই সাজানো হয়েছে।

কোয়ান্টিকোর এমন কাহিনি দেখার পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভে ফেটে পড়েন কিছু ভারতীয় দর্শক। কেননা, কোয়ান্টিকোর আগের দুটি সিরিজের মতো তৃতীয়টিতেও মূল চরিত্রে রয়েছেন প্রিয়াংকা। সকলে তাই প্রশ্ন তোলেন, একজন ভারতীয় হয়ে প্রিয়াংকা কীভাবে এমন একটি চিত্রনাট্যে অভিনয় করতে রাজি হলেন, যেখানে ভারতীয়দের সন্ত্রাসী হিসেবে দেখানো হয়েছে।

এক্ষেত্রে অভিনেত্রী প্রিয়াংকার ভূমিকা দেশবিরোধী উল্লেখ তাকে দেশদ্রোহী তকমা দেন অনেকে। অনেকে আবার এক ধাপ এগিয়ে প্রিয়াংকা অভিনীত সকল সিনেমা বয়কট করার ডাক দেন। গত ১ জুন সোশ্যাল মিডিয়ায় এমন ঝড় ওঠার ঠিক দশ দিনের মাথায় দুঃখ প্রকাশ করলেন অভিনেত্রী। আর এ জন্য তিনি বেছে নিয়েছেন নিজের টুইটার হ্যান্ডেলকে।

শনিবার রাতে দেয়া এক টুইট বার্তায় প্রিয়াংকা লিখেন, ‘আমি অত্যন্ত মনঃক্ষুণ্ন ও দুঃখিত। কিছু মানুষ কোয়ান্টিকোর একটি এডিসোড দেখে মনে আঘাত পেয়েছেন। এটা কোনোভাবেই আমার বা আমাদের উদ্দেশ্যমূলক ছিল না। এ জন্য মন থেকে দুঃখ প্রকাশ করছি। আমি একজন গর্বিত ভারতীয়। আমার এই অবস্থান কোনোদিনই পরিবর্তন হবে না।’

শুধু প্রিয়াংকাই নন, টিভি সিরিজ কোয়ান্টিকোর তৃতীয় সিজনের একটি এপিসোডে ভারতীয়দের সন্ত্রাসী হিসেবে দেখানোয় দুঃখ প্রকাশ করেছে এটির নির্বাহী প্রযোজনা সংস্থা এবিসি স্টুডিও-ও। তবে তাতে কী মন গলবে ভারতীয়দের? তারা কি ক্ষমা করবে প্রিয়াংকাকে?

নিজ দেশের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি বলিউডে প্রতিষ্ঠা পাওয়া সাবেক বিশ্বসুন্দরী প্রিয়াংকা চোপড়া ২০১৫ সালে পাড়ি জমান হলিউডে। বিশ্বের সবচেয়ে বড় এ সিনেমার জগতেও বর্তমানে মোটামুটি পরিচিত মুখ তিনি। আমেরিকান টিভি সিরিজ কোয়ান্টিকোর বিতর্কিত এই সিজনটিসহ তিনটি সিজনে তিনি অভিনয় করে ফেললেন।

 

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY