বিনোদন সংবাদ : আগামী ৭ জুলাই বিয়ে হওয়ার কথা রয়েছে মহাক্ষয় ওরফে মিমোর। কি, চিনলেন না তো? এই মহাক্ষয় হচ্ছেন কলকাতার বাংলা ও বলিউডের হিন্দি সিনেমার কিংবদন্তী নায়ক মিঠুন চক্রবর্তীর বড় ছেলে। যিনি নিজেও একজন অভিনেতা। কলকাতার একাধিক বাংলা ছবিতে তাকে দেখা গেছে। এবার চিনেছেন তো?

ছেলে মহাক্ষয়ের বিয়ে নিয়ে দারুণ ব্যস্ত সুপারস্টার বাবা মিঠুন চক্রবর্তী। দিন পনের আগে থেকেই চক্রবর্তী পরিবারে বইছে আনন্দের বন্যা। কিন্তু সব আনন্দই যেন ধুলোয় লুটিয়ে দিল একটি ঘটনা। মিঠুনপত্র মহাক্ষয়ার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছেন এক তরুণী। মামলাও হয়েছে। যার কারণে বড়সড় এক বিতর্কের মুখে পড়ে গেছেন তারকা বাপ-বেটা।

ইন্ডিয়া টুডে’র রিপোর্ট বলছে, আজ সোমবার দিল্লির রোহিনী আদালতে মহাক্ষয়ার বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা দায়ের করা হয়েছে। আদালতের নির্দেশেই এফআইআর দায়ের হয়েছে বলে রিপোর্টে প্রকাশিত হয়েছে। যদিও এ বিষয়ে নায়ক মিঠুন চক্রবর্তী ও তার পরিবারের তরফ থেকে এখনও কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

 

অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট একতা গৌবা সোমবার আদালতের নির্দেশ জানিয়ে বলেন,  ‘এটা একটা হাই প্রোফাইল মামলা। এতে রাজ্যসভার একজন প্রাক্তন সাংসদের নামও জড়িয়ে আছে।’ এক্ষেত্রে শুধু মহাক্ষয়ই নয়, অভিযোগ দায়ের হয়েছে তার মা অর্থাৎ মিঠুনের স্ত্রী যোগিতা বালির বিরুদ্ধেও। তার বিরুদ্ধে প্রতারণা ও জোর করে গর্ভপাত করানোর অভিযোগ উঠেছে।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস-এ প্রকাশিত অন্য আরেকটি রিপোর্টে বলা হয়েছে, ২০১৫ সাল থেকে অভিযোগকারী তরুণীর সঙ্গে মহাক্ষয়ের সম্পর্ক ছিল। অভিযোগ, কোমল পানীয়ের সঙ্গে মাদক মিশিয়ে ওই তরুণীকে অচেতন করেন মহাক্ষয়। তারপর তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেন। অন্তঃসত্ত্বা হয়েছেন জানার পরই ওষুধ দিয়ে তরুণীর বাচ্চা নষ্ট করে ফেলা হয়। পরে বিয়ে করতেও অস্বীকার করেন।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY