ভিন্ন  সংবাদ : জামালপুর শহরতলীর রশিদপুরে শিশু কন্যাকে ধর্ষণের দায়ে পিতা রবিউল ইসলামকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার দুপুরে জামালপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে বিচারক রেজা মো. আলমগীর হোসেন এই রায় দেন।

মামলায় সূত্রে জানা গেছে, রশিদপুর গ্রামের রবিউল ইসলাম তার পঞ্চম শ্রেণি পড়ুয়া শিশু কন্যাকে ৭/৮ দিন নিজ ঘরে ধর্ষণ করে। এতে একপর্যায়ে শিশুটি গর্ভবর্তী হয়ে পড়ে। ২০১৭ সালের ১৫ জুলাই এই ঘটনা জানাজনি হলে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী রবিউলকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। পরে ওইদিন রাতেই শিশুর মা বাদী হয়ে জামালপুর সদর থানায় পিতা রবিউল ইসলামের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন।

তদন্ত শেষে আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হওয়ায় মামলার তদন্তকারী অফিসার ২০১৭ সালের ৯ সেপ্টেম্বর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। অভিযোগটি শিশু নির্যাতনের হওয়ায় মামলাটি নারী ও শিশু নির্যাতন আদালতে পাঠানো হয়। আদালতের বিচারক ১০ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আসামির বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় রবিউলকে এই  কারাদণ্ডাদেশ প্রদান করেন।

মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মো. আকরাম হোসেন জানান, মামলার এই রায়ে রাষ্ট্রপক্ষ সন্তোষ প্রকাশ করেছে এবং এই রায়ের মাধ্যমে একটি দৃষ্টান্ত স্থাপন হয়েছে। ভবিষ্যৎে কেউই আর ধর্ষনের মতো খারাপ কাজে লিপ্ত হবেন না বলে আশা করেন তিনি।

এই মামলায় আসামির পক্ষে কোনো আইনজীবী এজলাসে উপস্থিত ছিলেন না।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY