মো. আবু রায়হান, শেরপুর ঝিনাইগাতী প্রতিনিধি

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলা কমপ্লেক্স ও জন-বসতির মাঝে সার-গুদামের স্থান নির্ধারণ করায় এলাকাবাসী, পরিবেশবিদ ও সচেতন মহলের নানা প্রশ্ন। কারণ হিসাবে জানা যায়, ঝিনাইগাতী উপজেলা সদর ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের পার্শ্বে সার-গুদামের স্থান নির্ণয় করা হয়েছে। অভিযোগে প্রকাশ, ঘন-বসতির মাঝে সার-গুদামের স্থান নির্ধারণ করা যুক্তিযুক্ত নয় বলে মনে করেন পরিবেশবিদ ও সচেতন মহল। এলাকাবাসীরও একই অভিযোগ এরকম জন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে কোন ভাবেই সার-গুদাম নির্মাণ করা উচিত হবে না। কারণ এই সার-গুদামে রাখা সারের গ্যাস ও নির্গম পদার্থের গন্ধের কারণে আশে-পাশের থাকা জন-বসতির লোকজন এবং সরকারী অফিসের কাজ-কর্মে বিঘ্নতা দেখা দিতে পারে। প্রকাশ থাকে যে, সার-গুদামের জন্য নির্ধারিত স্থানের পার্শ্বে উপজেলা পরিষদ, চেয়ারম্যানের কার্যালয় ও বাসভবন, নির্বাহী অফিসার ও সরকারী কর্মকর্তাদের বাসভবন, জেলা পরিষদ ডাক-বাংলো, উপজেলা শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম, ব্র্যাক অফিস ও পাশেই ফায়ার সার্ভিস স্টেশন রয়েছে। এছাড়া সার-গুদামের নির্ধারিত স্থানের উত্তর ও পূর্ব দিকে ঘন বসতি, পশ্চিশে রয়েছে শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম ও দক্ষিণে ফায়ার সার্ভিস স্টেশন। যে স্টেডিয়ামের অত্র উপজেলার জাতীয় কর্মসূচি পালন করা হয়। উল্লেখ্য, এমন জনগুরুত্ব পূর্ন স্থানে যদি সার-গুদাম নির্মাণ করা হয় তাহলে উল্লেখিত অফিস-বাসস্থান, স্টেডিয়াম ও জন-গণের নানা সমস্যার সম্মুখিন হতে হবে। তাই এলাকাবাসী ও সচেতন মহলের দাবী উক্ত স্থানে সার-গুদাম নির্মাণ না করে অন্যত্রে খোলা-জায়গাই উক্ত সার-গুদাম নির্মাণ করলে সকল অসুবিধা থেকে মুক্ত থাকবে জন-গুরুত্বপূর্ণ এলাকা।

 

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY